অরুণাভ সেনগুপ্তর লেখা

অরুণাভ সেনগুপ্ত

 

বাবা কেন চাকর বা গুরুদক্ষিণা অনুরাগ কাশ্যপ করলে সেটা স্পুফ হবে, স্বপন সাহা অঞ্জন চৌধুরী করলে সেটা বিশেষ জনগোষ্ঠীর হৃদয় ছোঁবে… স্পুফ নিয়ে আঁতলামো ও খিল্লী দুইই করা যায়, সিঙ্গল স্ক্রীন ভরানো যায় না… সিঙ্গল স্ক্রীন ভরিয়ে ইন্ডাস্ট্রি বাঁচাতে হলে বাবা কেন চাকরই করতে হবে, লা নত্তে বা পিয়েরো ল্য ফউ করলে তো ইন্ডাস্ট্রি বাঁচবে না… সবার রুচি সবার আই কিউ বা সি কিউ সমান নয়, হিউম্যান জেনেটিক্সই সেটা সমর্থন করে না… তাই বাবা কেন চাকর ইস আ মাস্ট।

কোনও জিনিস জনপ্রিয় করার দুটো উপায় আছে… সহজটা হল ঘাড় ধরে তার কোয়ালিটি নামিয়ে দেওয়া, স্বপন সাহার ‘বই’-এ যদি দেখেন ক্যাটকেটে সবুজ সোফায় ক্যাটকেটে গোলাপী কভার আর পিছনে ক্যাটকেটে হলদে পর্দা তাহলে বুঝবেন ওটা ইনটেনশনাল… দ্বিতীয় উপায় সৃষ্টির কোয়ালিটি ঐশ্বরিক উচ্চতায় নিয়ে যাওয়া যাতে স্বপন গোইং ও লারস ভন ট্রায়ার গোইং দর্শক পাশাপাশি বসে মজা নেয়… এই মুহূর্তে হীরক রাজার দেশে ছাড়া এই লেভেলের সৃষ্টি মনে পড়ছে না।

মোদ্দা কথাটা হচ্ছে ঘিবলির হায়াও মিয়াজাকির প্রতিভা নিয়ে সমস্ত পরিচালক জন্মান না… তাই স্বপন গোইং আর লারস গোইং দর্শক চিরকাল আলাদাই হয়, হবেও…

তাই যে মুভিগুলো সিঙ্গল স্ক্রীন বাঁচিয়ে রেখেছে তাদের আমি যথেষ্ট সম্মান করি…

পালস বোঝার ক্ষেত্রে স্বপন সাহা আর অঞ্জন চৌধুরী আমার প্রিয় পরিচালকদের মধ্যেই পড়বেন…

ইন্ডাস্ট্রিটা তো এঁরাই বাঁচালেন তাই না?

 

About চার নম্বর প্ল্যাটফর্ম 4063 Articles
ইন্টারনেটের নতুন কাগজ

Be the first to comment

আপনার মতামত...